জাতীয় কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও গবেষণা একাডেমী (নেকটার) নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২

জাতীয় কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও গবেষণা একাডেমী (নেকটার) নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ঃ কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এর অধীন জাতীয় কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও গবেষণা একাডেমী (নেকটার), বগুড়ার রাজস্ব খাতের (অস্থায়ী/স্থায়ী) পদসমূহে সরাসরি নিয়োগের মাধ্যমে পূরণের নিমিত্তে নিম্নবর্ণিত শর্তে উল্লেখিত পদের বিপরীতে যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা সম্পর প্রকৃত বাংলাদেশী নাগরিকের নিকট হতে আবেদন পত্র আহবান করা হচ্ছে।

চাকরির ধরনসরকারি চাকরি
জেলাসকল+উল্লেখিত জেলা
প্রতিষ্ঠাননেকটার, বগুড়া
অফিসিয়াল সাইটhttp://www.nactar.gov.bd
মোট পদ১১টি
পদের সংখ্যা১৫ জন
বয়স১৮-৩৫ বছর
শিক্ষাগত যোগ্যতা৮ম-স্নাতক
আবেদন শুরু২০ ডিসেম্বর, ২০২১
আবেদনের শেষ তারিখ২০ জানুয়ারি, ২০২১
আবেদনের ঠিকানাnactar.teletalk.com.bd

নেকটার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২

নির্দিষ্ট তারিখে প্রার্থীদের সর্বনিম্ন বয়সসীমা ১৮ বছর ও সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৩০ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধা এবং মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ১৮-৩২ বছর। বয়স প্রমানের ক্ষেত্রে এফিডেভিট গ্রহণযোগ্য নয়।

নেকটার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২১
নেকটার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি
নেকটার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

আরো পড়ুন-

শর্তাবলী

২। নিয়োগের ক্ষেত্রে সরকারের বিদ্যমান বিধি-বিধান এবং এ সংক্রান্ত বিধি-বিধানে কোন সংশোধন হলে তা অনুসরণ করা হইবে।

সরকারি, আধা-সরকারি ও স্বায়ত্ব-শাসিত প্রতিষ্ঠানে কর্মরত প্রার্থীগণকে অবশ্যই যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করতে হইবে।

৪। অসম্পূর্ণ, অসত্য তথ্য সম্বলিত আবেদনপত্র বাতিল বলে গণ্য হইবে এবং প্রার্থী কর্তৃক প্রদত্ত কোন তথ্য নিয়োগ কার্যক্রমে যে কোন পর্যায়ে বা নিয়োগদানের পরেও অসত্য/ প্রমানিত হলে তার দরখান্ত/নির্বাচন বা নিয়োগ সরাসরি বাতিল বলে গণ্য হইবে।

৫। নিয়োগের বিষয়ে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত বলে গণ্য হইবে। কোন প্রকার আপত্তি গ্রহণযোগ্য হইবে না। যথাযথ কর্তৃপক্ষ কোন কারণ দর্শানো ছাড়াই কোন আবেদনপত্র বাতিল করার ক্ষমতা রাখে।

৬। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত শৃণ্য পদের সংখ্যা কম/বেশি হইতে পারে, যা নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্ধারিত হইবে।

৭। মৌখিত পরীক্ষার সময়ে নিম্লোক্ত কাগজপত্রাদি দাখিল করতে হইবেঃ-
ক) সকল সনদপত্রের মূলকপি প্রর্দশন করতে হইবে এবং সনদপত্রের ফটোকপি দাখিল করতে হইবে;

খ) জেলার স্থায়ী বাসিন্দার প্রমাণপত্র হিসেবে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/পৌরসভার মেয়র/সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর কর্তৃক প্রদস্ত সনদ এবং প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি দাখিল
করতে হইবে।

গ) আবেদনকারী মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যার পুত্র-কন্যা হলে আবেদনকারী শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র কন্যার পুত্র-কন্যা এ মর্মে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যন/পৌরসভার মেয়র/সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর কর্তৃক প্রদত্ত সনদের ফটোকপি দাখিল করতে হইবে। এ ক্ষেত্রে প্রার্থীর পিতা/মাতার নাম এবং মুক্তিযোদ্ধার পুত্র/কন্যার নাম উল্লেখসহ মুক্তিযোদ্ধার সাথে প্রার্থীর সম্পর্কের সুস্পষ্টভাবে সনদে উল্লেখ করতে হইবে।

ঘ) শারীরিক প্রতিবন্ধী, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী এবং আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা সদস্য প্রার্থাদের ক্ষেত্রে সর্বশেষ নীতিমালা অনুযায়ী উপযুক্ত কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রদর্ত সনদের ফটোকপি দাখিল করতে হইবে।

ঙ) সরকারি/আধাসরকারি/স্বায়স্তশাসিত/অনুমোদিত বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত প্রার্থাগণকে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃকণ প্রদত্ত অনাপত্তি পত্র/ছাড়পত্রের মূলকপি জমা দিতে হইবে।

৮। নিয়োগ পরীক্ষায় অংশশ্রহণের জন্য কোন প্রকার টিএ/ডিএ প্রদান করা হইবে না।

৯। ভুল-ভ্রান্তি সংশোধনযোগ্য এবং নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে নিয়োগবণরী কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলে গণ্য
হইবে।

১০। অনিবার্ধ কারণে নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত/বাতিল/প্রত্যাহার করার ক্ষমতা নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করেন।

১১। বিজ্ঞাপনে উল্লেখিত পদ/পদ সমূহের চুড়ান্ত সুপারিশ প্রণয়নের ক্ষেত্রে সরকারের সর্বশেষ কোটা নীতি অনুসরণ করা হইবে।

নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ এ জয়েন হতে পারেন

Leave a Comment